ধনী হতে কে না চায়। চাকরি বা ব্যবসা যে পেশায়ই মানুষ থাকুক না কেন ধনী হওয়ার বাসনা সবারই। কিন্তু সবার পক্ষে ধনী হওয়া সম্ভব নয়।

বর্তমান বিশ্বের অর্ধেক মানুষের সমান সম্পদের মালিক মাত্র দুই হাজার মানুষ। যাদের শী'র্ষ ধনী বলা হচ্ছে। তারা যা সম্পদ তা ভারতের বাজেটের চেয়ে বেশি। ১০০ কোটি গরিবের যে সম্পদ রয়েছে তারচেয়ে চারগুণ বেশি সম্পদের মালিক এই দুই হাজার ব্য'ক্তি।

তবে এমন ধনী হওয়ার আশা আম'রা যদি নাও করি তবুও তুলনামূলক বেশি সম্পদের মালিক হতে চাই। তবে সম্পদের মালিক হতে গেলে জীবনের অনেক অভ্যাস বদলে ফেলতে হবে। আসুন জে'নে নেই যেসব কাজ ঠিকঠাক ক'রতে পারলে বা অনুসরণ করলে বুঝতে হবে সম্পদ ধ'রা দেবে :

১. স্বপ্নকে অনুসরণ: যারা ভালো কিছু করার চেষ্টা করেন তার জীবনের স্বপ্ন পূরণের জন্য কাজ করেন। তারা স্বপ্নকে অনুসরণ করে জীবন পরিচালিত করেন। ফলে স্বপ্ন পূরণ ক'রতে পারেন।

২. প্রতিদিন শেখা: সফল মানুষরা প্রতিদিনই নতুন কিছু শেখার চেষ্টা করেন। ৮৮ ভাগ ধনী লোক প্রতিদিন ৩০ মিনিট বা তারও বেশি সময় ক'ঠোরভাবে জানতে এবং নিজেকে শিক্ষিত ক'রতে ব্যয় করেন।

৩. চিন্তা নিয়ন্ত্রণ: আপনি বড় চিন্তা ক'রতে পারেন। আপনার একটি বড় কল্পনা শ'ক্তি আছে। আপনি যা কিছু করছেন তার মালিক আপনিই। ৯১ ভাগ ধনী ব্য'ক্তি নিজেই সি'দ্ধান্ত গ্রহণকারী।

৪. দায়িত্বশীলতা: দায়িত্বজ্ঞান থেকে আপনি লজ্জা পান না। বস্তুত আপনি সুযোগ খোঁ'জেন, যা আপনাকে আরো দায়িত্ববান করে।

৫. ঝুঁ'কি গ্রহণ: আপনি সত'র্ক এবং ঝুঁ'কি নিতে বেপরোয়া নন। সত'র্ক ঝুঁ'কি গ্রহণকারী তাদের বাড়ির কাজ করেন, নতুন ধারণা এবং উ'দ্যোগ তাদের একটি ব্যবসার মধ্যে চালু করার আগে ঝুঁ'কি নিতে তারা দক্ষ'তা এবং জ্ঞানকে কাজে লা'গান।

৬. পদক্ষে'প নেন: আপনি কোনো পদক্ষে'প নিতে ভীত নন। সফলতার জন্য আপনাকে পদক্ষে'প নিতে হবে। বসে থাকলে বা শুধু চিন্তা করলে কখনোই সফল হওয়া যাবে না।

৭. ব্য'র্থতা জয় করা: একবার ব্য'র্থ হলে থেমে যাওয়ার উপায় নেই। ব্য'র্থতাকে আপনি অভিজ্ঞতা অর্জন ছাড়া অন্য কিছু হিসেবেই দেখছেন না। তাহলে বুঝবেন ধনী হওয়া যাবে।

৮. আউটওয়ার্ক করা: ধনী ব্য'ক্তিরা দিন, সপ্তাহ, মাস এবং বছরব্যাপী কাজ ক'রতে ভীত নন। ধনী ব্য'ক্তিরা সপ্তাহে গড়ে ১১ ঘণ্টা বেশি কাজ করেন ধনহীনদের তুলনায়।

৯. দৃঢ়সংকল্প: লক্ষ্য পূরণের জন্য ক্রমাগত দৃঢ় সংকল্পবদ্ধ হতে হবে এবং লক্ষ্যের পেছনে ছুটেন জীবনে নিজেকে সামনে এগিয়ে নিতে। ধনীদের ৮০ ভাগই লক্ষ্য কে'ন্দ্রীক। তারা লক্ষ্য অর্জনে অভ্যস্ত হতে অভ্যাস গড়ে তোলেন।

১০. প্রত্যাশাকে অতিক্রম: প্রত্যাশাকে অতিক্রম করা গু'রুত্বপূর্ণ। আপনি অন্যদের প্রত্যশাকে অতিক্রম করার চেষ্টা করেন। তাহলে ধনী হওয়া যাবে।

১১. স'ম্পর্কে অন্ধবিশ্বা'সী: আপনি যদি অন্যের জ'ন্মদিনে ফোন করে বা এমনিতে ফোন করে অন্যের খোঁ'জ খবর নেন তাহলে আপনার যোগাযোগ বৃ'দ্ধি পাবে। আপনার মূল্যবান স'ম্পর্ক আপনার জন্য নানা দ্বার খু'লে দেবে। স'ম্পর্ক আপনার কাছে মুদ্রার মতো।

১২. অন্যকে প্রাধান্য: লোকজন আপনাকে পছন্দ করে। তারা আপনার স'ঙ্গে কাজ ক'রতে এবং ব্যবসা ক'রতে পছন্দ করে। আপনি লোকদের প্রফুল্ল হতে, সুখী, উৎসাহী এবং আশাবাদী করে তোলেন।