পুরুষ সেজে এক মা তার নিজে’র মেয়েকে লালন-পা’লন করছেন। এ ল’ড়াইয়ে তাকে সা’জতে হয়েছে পুরুষ, পরতে হয়েছে পুরুষের মতো পোশাকও। বি’রল এ ঘ’টনাটি পাকিস্তানের। লাহোরের বা’সিন্দা ফারহিন। জা’না গে’ছে, লাহোরের আনারকলি বাজারে একটি দোকান চালান ফারহিন। ৯ বছরের মেয়েকে নিয়েই জগৎ তার। পরিবারে কোনও পুরুষ উ’পার্জনকারী নেই। ফারহিনকেই প’রিশ্রম ক’রতে হয় উ’দয়াস্ত।

কিন্তু বাজারের মতো জ’নসমাগমপূর্ণ এলাকায় একজন নারী হিসেবে নি’রাপদে কাজ করা মোটেই সহজ নয় সেখানে। তাই ফারহিন চুল কে’টে ফে’লেছেন ছোট করে। প্যান্ট পরে, পুরুষ সেজেই রোজ দোকানে বসেন তিনি। সারাদিন কাজ করে হোস্টেলে ফি’রে পোশাক ব’দলান। ফারহিন একটি হোস্টেলেই থাকেন মেয়েকে নিয়ে।

শুধু তাই নয় সারাদিন বাজারে ব্যব’সা করার পরে, সন্ধা বেলায় ট্যাক্সিচালক হিসেবে কাজ করেন ফারহিন। পাকিস্তানের মতো দেশে যেখানে না’রীস্বাধীনতার আলো এখনও বেশ আ’বছা, সে দেশে ‘সিঙ্গল মাদার’ শ’ব্দব’ন্ধটিই বিরল এবং চ্যালে’ঞ্জিং। সেই চ্যা’লেঞ্জে’র মুখেই ল’ড়াই ক’রছেন লাহোরের বা’সিন্দা ফারহিন।