মহামা'রী ক'রোনা ভা'ইরাসে জে'রে এখন জীবনযাত্রাই বদলে গিয়েছে সাধারণ মানুষের ৷ ভ্যাকসিন কবে আসবে সেই প্রতীক্ষাতেই রয়েছেন সবাই ৷ এদিকে দিন দিন বাড়ছে আক্রা'ন্তের সংখ্যা ৷ শপিং, আউটিং কোনও কিছুতেই এখন কারোর ইন্টারেস্ট নেই ৷ কোথাও যাওয়ার নেই কারোর ৷ পার্টি-অনুষ্ঠান প্রায় কিছুই নেই ৷ ক'রোনা থেকে বাঁচতে চা'হিদা এখন কেবলমাত্র দুটি জিনিসেরই ৷ সেটা হল মাস্ক এবং হ্যান্ড স্যানিটাইজার ৷

এমন অব'স্থায় ভারতের পুণে এবং কটকের দুই ব্যবসায়ী সোনার মাস্ক পরে রাস্তায় ঘুরে আগেই নজির গড়েছেন। এছাড়া সুরাতে দেখা গিয়েছে ঝকমকে রেশমী কাপড়ের উপরে হিরে বসানো মাস্ক। এরই মধ্যে খোঁ'জ মিলল কোয়েম্বাটুরের স্বর্ণবণিক রাধাকৃষ্ণণ সুন্দরম আচার্যের ৷ তিনি মাস্ক বানাচ্ছেন সোনা দিয়ে৷ ভি'তরে সেলাই থাকছে রুপোর তার দিয়ে।

এই মাস্ক নিয়ে অবশ্য ইতিমধ্যেই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে ৷ তা হল কোভিডের জন্য যখন লাইফস্টাইলে অনেকাংশেই পরিবর্তন এসেছে সাধারণ মানুষের ৷ সেই সময় আচ'মকা এই ধ'রণের দামি সোনার মাস্ক কেন?

১৮ ক্যারেট সোনায় তৈরি মাস্কের দাম ২ লক্ষ ৭৫ হাজার রুপী (বাংলাদেশি মুদ্রায় ৩ লাখ ৫০ হাজার টাকা) মাত্র। বিক্রি হচ্ছে রুপোর মাস্কও, দাম ১৫ হাজার রুপী!

এখনও পর্যন্ত ৯টি মাস্কের অর্ডার পেয়েছেন রাধাকৃষ্ণণ সুন্দরম আচার্য ৷ তাঁর কথায়, এই মাস্ক সাধারণ মানুষের জন্য নয় ৷ বিত্তবান মানুষরা বিয়েবাড়ি বা কোনও বিশেষ অনুষ্ঠানের জন্যই এই ধ'রণের মাস্ক অর্ডার দিচ্ছেন।